স্বামীর যে কথায় সিনেমা ছেড়ে দিয়েছিলেন টুইঙ্কেল খান্না

0
558

স্বামীর যে কথায়- হঠাৎ করেই বলিউডের রুপালি পর্দা থেকে নিজেকে আড়ালে নিয়ে গিয়েছিলেন এ অভিনেত্রী। তাও আবার নায়িকা হিসেবে ছিলেন যখন সুপ্রতিষ্ঠিত।

‘মেলা’, ‘যান’, ‘বাদশা’ সহ একাধিক সুপারহিট বলিউড সিনেমা রয়েছে তার ঝুলিতে। পেয়েছিলেন বলিউডের অন্যতম সেরা অভিনেত্রীর তকমা।

তবু হারিয়ে গেলেন তিনি। অথচ তার স্বামী এখনো সিনেপ্রেমীদের হৃদয় কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছেন। একের পর এক হিট ছবির মুখ্য চরিত্র রূপ দিচ্ছেন।

জি, বলিউড অভিনেত্রী টুইঙ্কেল খান্নার কথা বলছি। বিয়ে করেছেন বলিউড মার্শাল আর্ট হিরো অক্ষয় কুমারকে। ঠিক বিয়ের পরই রুপালি পর্দায় আর তাকে দেখা যায়নি। যেখানে অক্ষয় কুমার বলিমহলে নিয়মিত সেখানে একসময়ের এ জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা কোথায় হারিয়ে গেলেন?

বলিউড ‘খিলাড়ি’কে বিয়ে করার কারণেই কি অভিনয় ছাড়তে হলো টুইঙ্কেল কে? সম্প্রতি এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয় রাজেশ খান্নার মেয়ে টুইঙ্কেল খান্নাকে।

এ ব্যাপারে কি বলছেন টুইঙ্কেল- অভিযোগের সুরেই তিনি এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানান, স্বামী অক্ষয় কুমারই আমাকে অভিনয় করতে না করেছেন। অভিনয় থেকে পুরোপুরিভাবে সরে আসার জন্য বলেছিলেন অক্ষয়।

এ খবরে অক্ষয় ভক্তরা হতবাক হয়ে পড়বেন ভেবেই আবার কেন অক্ষয় এমনটা চেয়েছিলেন তার ব্যাখ্যা দিলেন টুইঙ্কেল।

তিনি বলেন, আমি অভিনয় ঠিক একটা পারি না, সেই কারণেই নাকি অক্ষয় আমাকে অভিনয় ছেড়ে দিতে বলেছিলেন। কোনো রকম ঝুটঝামেলা ছাড়াই অক্ষয়-টুইঙ্কেল দম্পতি তাদের সংসার জীবন পার করছেন।

বিটাউনের খবর, অভিনয়ে কতটা দক্ষ তা প্রশ্নের সম্মুখীন হলেও বিয়ের পর দক্ষ হাতে সংসার সামলাচ্ছেন টুইঙ্কেল খান্না। দুই সন্তানকেও সুন্দরভাবে বড় করে তুলছেন।

সম্প্রতি ‘মিসেস ফানিবোনস’ নামে একটি বই প্রকাশ করেছেন অক্ষয়-ঘরণী। খুব শিগগিরই তিনি আরও একটি বই প্রকাশ করতে চলেছেন বলে জানা যাচ্ছে।

‘আমি জীবনে অনেক বড় অপরাধ করেছি কিন্তু গৌরী চুপ থেকে সামলে নিয়েছে’

বলিউডে শাহরুখ খান গৌরী খানের প্রেম, বিয়ে, দাম্পত্য যেকোনও দম্পতির কাছেই স্বপ্নের। জীবনে বহু কিছু ঘটেছে তবুও শাহরুখ-গৌরী কখনওই তাঁদের সম্পর্ক ভাঙার কথা ভাবতেও পারেননি। বিয়ের পর দীর্ঘ ২৭ বছরের দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন শাহরুখ-গৌরী।

‘আমি জীবনে অনেক বড় অপরাধ করেছি কিন্তু গৌরী চুপ থেকে সামলে নিয়েছে’

আজ তিনি বলিউড বাদশা ঠিকই তবে শাহরুখ খানের জীবনের শুরুটা হয়েছিল শূন্য থেকেই। যখন শাহরুখ খানের কাছে থাকার জন্য মুম্বইয়ে কোনও জায়গা ছিল না, রাস্তায় শুয়ে দিন কেটেছে, ঠিক সেই সময় থেকেই শাহরুখের হাত ধরেছিলেন গৌরী।

আজও সেই হাতটা তিনি ছাড়েননি। সম্প্রতি সালমান খানের শো ‘দশ কা দম’-এ এসে সকলের সামনে বিশেষ কিছু স্বীকারোক্তি করেছেন শাহরুখ। কিং খান বলেন, তিনি জীবনে বহু ভুল করেছেন তবুও গৌরী তাঁর হাত ছাড়েননি।

আমি যতই খারাপ হয়ে যাই, যতই খারাপ কাজ করি, সেসবকিছু যদি কেউ সামলে নিতে পারে তা শুধুই গৌরী। আমি তো মনে করি গৌরীই আমার জীবনের সবকিছু সামলে নিয়েছে।

শাহরুখ আরও বলেন, আমি জীবনে অনেক বড় অপরাধ করেছি। অনেক নোংরা কাজ করেছি কিন্তু কখনও না কখনও ও চুপ থেকে আমায় সামলে নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে শাহরুখ-প্রিয়াঙ্কার প্রেমের খবরে সরগরম ছিল বি-টাউন। যদিও শাহরুখ বা প্রিয়াঙ্কা দুজনের কেউই বিষয়টি নিয়ে কোনও দিনই মুখ খোলেননি।

তবে প্রিয়াঙ্কার জন্য নাকি মান্নাতে গৌরীর সুখের সংসারে ঝড় উঠেছিল বলেও শোনা যায়। তবে যেকোনও কারণেই হোক সেই সম্পর্ক টেকেনি। জিনিউজ

যেভাবে সুপারস্টার বাবাকেও ছাড়িয়ে গেল অপু পূত্র জয়

শাকিব খান। তার সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলার নেই। বর্তমান প্রেক্ষাপটে শাকিব ও ঢালিউড যেন একে অন্যের পরিপূরক শব্দ। হোক সেটা আলোচনা কিংবা সমালোচনা। কিন্তু এরই মাঝে শাকিব খানকে ছাড়িয়ে গেলেন পুত্র আব্রাহাম খান জয়।

যেভাবে সুপারস্টার বাবাকেও ছাড়িয়ে গেল অপু পূত্র জয়

মাত্র তিন মাসে প্রায় সোয়া লাখ ভক্ত জোগাড় হয়ে গেছে তার ইনস্টাগ্রামে। অর্থাৎ সেখানে এ সংখ্যক ফলোয়ার রয়েছেন জয়ের। বাংলাদেশের কোনও সেলিব্রেটির এত ফলোয়ার নেই ইনস্টাগ্রামে।

যদিও ফেসবুকে অনেক বাংলাদেশি তারকা বা সেলিব্রেটির কোটি ফলোয়ারও রয়েছে। কিন্তু ইনস্টাগ্রামে জয়ের ফলোয়ারই সবচেয়ে বেশি।

এ প্রসঙ্গে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘এপ্রিলেই প্রথম জয় সবার সম্মুখে আসে। এরপরই ইনস্টাগ্রামের অ্যাকাউন্টটা খোলা হয়। মাত্র তিন মাসে ভক্তদের এ ভালবাসা সত্যিই বিস্ময়।

আর একটা কথা না বললেই নয়, ইনস্টাগ্রামে অনেক ফেইক অ্যাকাউন্টও দেখা যাচ্ছে জয়ের। এতে করে অনেকেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন। আশা করি, এই ফেইক অ্যাকাউন্টগুলো শিগগিরই বন্ধ হয়ে যাবে।’

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে বিয়ে হয় শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের। বিষয়টি গোপন ছিল। অপু যখন সন্তান সম্ভবা তখনই অপু আড়ালে চলে যান। ১০ মাস পর ফেরেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস।

তিনি এই দীর্ঘ সময়টা ভারত, সিঙ্গাপুর ও ব্যাংককে ছিলেন। কলকাতার একটি হাসপাতালে জয়ের জন্ম হয় ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর। ছেলের নাম রাখেন আব্রাহাম খান জয়।

যে কারণে জাজের বাইরে কাজ করছেন জলি

অনেকে ধারণা করেছিলেন নায়িকা ফাল্গুনী রহমান জলি হয়তো জাজের বাইরে কাজ করবেন না। কিন্তু সেই ধারণা ভেঙে দিলেন জলি। সবার সঙ্গেই কাজ করতে চান তিনি। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি বিজ্ঞাপন ও ওয়েব সিরিজে কাজ করতেও আপত্তি নেই।

জলি বলেন, ‘আমি কখনো এক ঘরে বন্দি হয়ে থাকতে চাইনি। অবশ্য জাজের সঙ্গে আমার দ্বন্দ্ব চলছে তা কিন্তু নয়! একজন শিল্পী ধরাবাঁধা নিয়মে থাকলে সঠিকভাবে তাকে কাজে লাগানো যায় না। আমি সেটা চাইও না। জাজ যদি আবার ডাকে, অবশ্যই সাড়া দেব। পাশাপাশি অন্যদের সঙ্গেও কাজ করে যাব।’

বর্তমানে অনন্য মামুনের ‘ফোন এক্স’ নামের একটি ওয়েব সিরিজের শুটিং শুরু করেছেন জলি। চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন নিরবের বিপরীতে অফিসার রিটার্নস ছবিতে।

প্রসঙ্গত, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার হাত ধরে চলচ্চিত্রে অভিষেক। প্রথম ছবি ওয়াজেদ আলী সুমনের ‘অঙ্গার’। এরপর জাকির হোসেন রাজুর ‘নিয়তি’। সর্বশেষ মুক্তি পায় নাদের চৌধুরীর ‘মেয়েটি এখন কোথায় যাবে’। তিনটি ছবিই প্রযোজনা করেছে জাজ।

Comments

Facebook Comments